খুব সহজে কড়া-ক্রান্তি থেকে শতাংশের হিসাব বের করুন

পোষ্ট লিখেছেনঃ | প্রকাশিত হয়েছেঃ শুক্রবার, মার্চ ২৩, ২০১৮ | ভয়েস বিভাগঃ
জমি জমা নিয়ে কাজ করতে হলে বা নিজের জায়গা জমি থাকলে তার হিসাব রাখাটা জরুরী হয়ে পড়ে। কিন্তু আমাদের জমি জমার খতিয়ান সেই পুরানো আমলের কড়া, ক্রান্তি, আনা, গোন্ডা ইত্যাদিতে লেখা বলে আমরা আমাদের প্রাপ্য অংশ বা হিস্যা বের করতে পারিনা। কারণ কড়া, ক্রান্তির হিসেব টা আমরা অনেক জটিল মনে করি। তবে সদিচ্ছা থাকলে এবং এই পোস্টটি পড়লে আপনি খুব সহজেই এই হিসেব টা বুঝতে পারবেন এবং যেকোন হিসেব কে শতাংশে রুপান্তরিত করতে পারবেন।

কড়া ক্রান্তির হিসেব থেকে শতাংশ বের করতে হলে আমাদের কিছু চিত্র অবশ্যই মনে রাখতে হবে অর্থাৎ আনা, গন্ডা, কড়া, ক্রান্তি, তিল এই পাঁচটি কিভাবে লিখতে হয় তা অবশ্যই আমাদেরকে জানতে হবে। নিচের ছবিটি ভালভাবে লক্ষ্য করলেই আনা গন্ডা কড়া ক্রান্তি তিল এই পাঁচটি চিহ্ন অবশ্যই লিখতে পারবেন।

উপরের চিত্রে দেখতে পারছেন আনা, কড়া ও ক্রান্তি বিশেষ চিহ্ন দ্বারা লেখা হয় এবং গন্ডা ও তিল গাণিতিক চিহ্ন দ্বারা লেখা হয়। ভালভাবে লক্ষ্য করুন কড়া লেখা হয় ।,।।, এই রকম চিহ্ন দ্বারা। কিন্তু চার কড়া সমান এক গন্ডা বিধায় চার কড়া ।।।।  এভাবে না লিখে ১ লেখা হয়েছে। ঠিক তেমনিভাবে ক্রান্তি /, // এভাবে লেখা হলেও তিন ক্রান্তি /// এভাবে না লিখে । এই এক কড়ার চিহ্ন লেখা হয়েছে। কারণ তিন ক্রান্তি সমান এক কড়া। আরেকটু ভালভাবে লক্ষ্য করুন প্রথমে আনা, তারপর গন্ডা, কড়া, ক্রান্তি ও তিল ধারাবাহিকভাবে লেখা হয়েছে। আপনি খতিয়ান দেখলে বুঝতে পারবেন খতিয়ানে ঠিক এভাবেই ধারাবাহিকভাবে হিস্যা লেখা থাকে। তবে যদি খতিয়ানে এই ধারাবাহিকতা না থাকে তাহলে ইলেক চিহ্ন ব্যবহার করা হয়ে থাকে।


আনা, গন্ডার হিস্যা শতাংশে বের করার সহজ পদ্ধতি

এবার আমরা খুব সহজেই আনা,গন্ডা, কড়া, ক্রান্তি ও তিলের হিসাব থেকে শতাংশ বের করবো। আমাদেরকে মনে রাখতে হবে যে, আনা,গন্ডা, কড়া, ক্রান্তি ও তিলের মধ্যে সবথেকে ছোট্ট একক হলো তিল। তাই আমরা আনা,গন্ডা, কড়া ও ক্রান্তিকে প্রথমে তিলে রুপান্তরিত করবো। এজন্য আমাদেরকে নিচের ছবিটি ভালভাবে লক্ষ্য করতে হবে।


উপরের চিত্রটি লক্ষ্য করলে দেখা যায় যে, এক আনা, এক গন্ডা, এক কড়া ও এক ক্রান্তি সমান কত তিল তা দেখানো হয়েছে। প্রথমে আমাদেরকে এটা মুখস্থ করতে হবে। অর্থ্যাৎ কত আনায় কত তিল, কত গন্ডায় কত তিল ইত্যাদি মুখস্থ রাখতে হবে। 

আমাদের প্রস্তুতি শেষ। এবার আমরা আসল কাজ শুরু করবো অর্থ্যাৎ খতিয়ান থেকে আনা, গন্ডা, কড়া, ক্রান্তির হিস্যা শতাংশে বের করবো। ধরুন একটি খতিয়ানে মোট সম্পত্তি রয়েছে ৭০ শতাংশ।তাতে আপনার অংশ রয়েছে ২ আনা, ২ গন্ডা, ২ কড়া, ২ ক্রান্তি ও  ৫ তিল। এখন এই কড়া, ক্রান্তির হিসাবের কারণে আপনি ঐ খতিয়ানের কত শতাংশ সম্পত্তির মালিক তা আপনি বুঝতে পারছেন না। চলুন আমরা সহজ ভাবে সহজ নিয়মে ঐ খতিয়ান থেকে আপনার হিস্যা শতাংশে বের করি।
এজন্য প্রথমেই আপনাকে আনা, গন্ডা,কড়া ও ক্রান্তিকে তিলে রুপান্তরিত করতে হবে। এক আনা সমান ৪৮০০ তিল হলে আপনার হিস্যা দুই আনা সমান (৪৮০০ × ২) = ৯৬০০ তিল হয়। এক গন্ডা সমান ২৪০ তিল হলে আপনার হিস্যা দুই গন্ডা সমান (২৪০ × ২) = ৪৮০ তিল হয়। এমনিভাবে দুই কড়া সমান ১২০ তিল, দুই ক্রান্তি সমান ৪০ তিল এবং আপনার যে ৫ তিল আছে এই সবগুলি তিল এখন যোগ করতে হবে। যোগ করলে মোট তিল হয় (৯৬০০ +  ৪৮০ + ১২০ + ৪০ + ৫) =  ১০২৪৫ তিল হয়। 

এবার আমরা খতিয়ানের মোট সম্পত্তিকে ষোল আনা সমান যে তিল হয় অর্থ্যাৎ ৭৬,৮০০ তিল দ্বারা ভাগ দিব। আপনার খতিয়ানের মোট সম্পত্তি ছিল ৭০ শতাংশ। তাহলে ৭০ শতাংশকে ৭৬,৮০০ দ্বারা ভাগ করলে পাওয়া যায়- (৭০ ÷ ৭৬,৮০০০)=  ০.০০০৯১১৪৫৮৩৩৩৩ শতাংশ।এখন আমরা ভাগ করে প্রাপ্ত এই ভাগফলকে আমাদের হিসাব করে বের করা তিল অর্থ্যাৎ ১০২৪৫ দিয়ে গুন করবো। তাহলে দাড়ায় (০.০০০৯১১৪৫৮৩৩৩৩ × ১০২৪৫)=  ৯.৩৩৭ শতাংশ।

উপরের এই সহজ নিয়ম অনুসরণ করে একজন ব্যক্তি সহজেই আনা, গন্ডা, কড়ার হিসাব থেকে নিজ হিস্যা শতাংশে বের করতে পারবেন।
  আপনি কি আমাদের ব্লগে লিখতে আগ্রহী? তাহলে এখানে নিবন্ধন করুন।
আপনার কি কিছু বলার ছিল? তাহলে লিখুন নিচে মন্তব্যের ঘরে
পোস্টটি শেয়ার করুন

Previous
Next Post »