স্ত্রী সেচ্ছায় তালাক দিলে কি দেনমোহর দিতে হবে?

| প্রকাশিত হয়েছেঃ বৃহস্পতিবার, ফেব্রুয়ারী ০৮, ২০১৮ | ভয়েস বিভাগঃ
তালাক আমাদের বর্তমান সমাজে একটি নিত্যনৈমিত্তিক ফ্যাশন হয়ে দাঁড়িয়েছে। কিছুদিন আগেও তালাক শব্দটিকে আমাদের সমাজ অতি ঘৃণাজনক বলে মনে করতেন। কিন্তু আজ কথায় কথায় তালাক দিয়ে দেওয়া যেন কোন ব্যাপারই না আমাদের কাছে। আইনজীবী হিসেবে আমার অভিজ্ঞতায় দেখেছি বর্তমানে তালাকের প্রয়োগ স্ত্রী কর্তৃক বেশি করা হয়।
আমাদের সমাজের মানুষের মনে একটি বদ্ধমূল ধারণা রয়েছে যে স্ত্রী যদি তার স্বামী কে সেচ্ছায় তালাক প্রদান করেন তাহলে ঐ স্বামী কে আর দেনমোহরের টাকা পরিশোধ করতে হবে না। কারণ তালাক তো আর স্বামী তে দেয়নি। কিন্তু এই ধারণা ভুল। দেনমোহর স্ত্রীর নিকট স্বামীর একটি ঋণ।  এর সাথে তালাকের কোনই সম্পর্ক নেই। আমরা ভেবে থাকি যে কেবল মাত্র তালাক হলেই দেনমোহর দিতে হয়। কিন্তু এটা ঠিক নয় যদিও আমাদের সমাজ ব্যবস্থায় এরকম প্রচলন রয়েছে। দেনমোহর যেহেতু একটি ঋণ সেহেতু স্ত্রী ঐ ঋণ পরিশোধের দাবি জানালে স্বামীকে তা অবশ্যই পরিশোধ করতে হবে। তবে স্ত্রী যদি সেচ্ছায় দেনমোহর এর দাবি পরিত্যাগ করেন তাহলে ভিন্ন কথা। নতুবা স্বামী এই ঋণ পরিশোধের দায় কখনো এড়াতে পারেন না।


আদালত কি দেনমোহর এর দায় হতে স্বামী কে রেহাই দিতে পারেন?

অবশ্যই না। দেনমোহর পরিশোধের দায় হতে স্বামীকে কেউ রেহাই দিতে পারেন না একমাত্র তার স্ত্রী ছাড়া। অর্থাৎ ঋণ যার মাফ করার অধিকার ও তার। 

স্বামী দেনমোহর এর টাকা না দিলে স্ত্রীর করণীয় 

স্বামী যদি স্ত্রী কে তার দেনমোহর পরিশোধ না করেন তাহলে স্ত্রী আদালতে দেনমোহর এর জন্য মোকদ্দমা দায়ের করে টাকা আদায় করতে পারে। এ ক্ষেত্রে পারিবরিক আদালতে মোকদ্দমা দায়ের করতে হয়। পারিবারিক মোকদ্দমা দ্রুত নিষ্পত্তি করা যায় এবং খরচও তুলনামূলক ভাবে কম।

          আপনার কি কিছু বলার ছিল? তাহলে লিখুন মন্তব্যের ঘরে
পোস্টটি শেয়ার করুন

Previous
Next Post »

1 টি মন্ত্যব্য:

মন্তব্য করার জন্য এখানে ক্লিক করুন