পুলিশ যখন বিনা পরোয়ানায় গ্রেফতার করতে পারে

| প্রকাশিত হয়েছেঃ মঙ্গলবার, মার্চ ২০, ২০১৮ | ভয়েস বিভাগঃ
ফৌজদারি কার্যবিধির ৫৪ ধারায় বিনা পরোয়ানায় কোন ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করার ক্ষমতা পুলিশকে দেয়া হয়েছে। ফৌজদারি কার্যবিধির ৫৪ ধারার ১ উপধারা অনুযায়ী কোনো পুলিশ অফিসার ম্যাজিস্ট্রেটের আদেশ অথবা পরোয়ানা ব্যতিত নিম্নবর্ণিত ব্যক্তিদেরকে গ্রেপ্তার করতে পারেন-

প্রথমতঃ কোন আমলযোগ্য অপরাধের সাথে জড়িত কোনো ব্যক্তি অথবা এরূপ অপরাধের বিষয়ে যার বিরুদ্ধে যুক্তি সঙ্গত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে অথবা বিশ্বাসযোগ্য খবর পাওয়া গিয়েছে অথবা যুক্তিসঙ্গত সন্দেহ রয়েছে।

দ্বিতীয়তঃ আইনসঙ্গত অজুহাত ছাড়া যার কাছে ঘর ভাঙার কোন সরঞ্জাম রয়েছে এরূপ ব্যক্তি। উল্লেখ্য যে এই আইনসঙ্গত অজুহাত প্রমাণ করার দায়িত্ব তার।

তৃতীয়তঃ এই কার্যবিধি অনুসারে অথবা সরকারের আদেশ দ্বারা যাকে অপরাধী বলে ঘোষণা করা হয়েছে।

চতুর্থতঃ চোরাই বলে যুক্তিসঙ্গত সন্দেহ করা যেতে পারে এরূপ মাল যার কাছে রয়েছে এবং যে এরূপ মাল সম্পর্কে কোনো অপরাধ করেছে বলে যুক্তিসঙ্গত ভাবে সন্দেহ করা যেতে পারে।

পঞ্চমতঃ পুলিশ অফিসারকে তার কাজে বাধাদানকারী ব্যক্তি অথবা যে ব্যক্তি আইনসঙ্গত হেফাজত হতে পলায়ন করেছে অথবা পলায়নের চেষ্টা করে।

ষষ্ঠতঃ বাংলাদেশ প্রতিরক্ষা বাহিনী হতে পলাতক বলে যাকে যুক্তিসঙ্গতভাবে সন্দেহ করা যেতে পারে।


সপ্তমতঃ বাংলাদেশে করা হলে অপরাধ হিসেবে শাস্তিযোগ্য হতো বাংলাদেশের বাইরে কৃত এরূপ কোন কাজের সাথে জড়িত বলে যার বিরুদ্ধে যুক্তিসঙ্গত অভিযোগ করা হয়েছে অথবা বিশ্বাসযোগ্য খবর পাওয়া গেছে অথবা যুক্তিসঙ্গত সন্দেহ রয়েছে এবং যার জন্য সে প্রত্যার্পণ সম্পর্কিত আইন অথবা ১৮৮১ সালের পলাতক অপরাধী আইন অনুসারে অথবা অন্য কোনভাবে বাংলাদেশে গ্রেপ্তার হতে অথবা হেফাজতে আটক থাকতে বাধ্য।

অষ্টমতঃ কোন মুক্তি প্রাপ্ত আসামী, যে ৫৬৫ ধারার ৩ উপধারা অনুসারে নিয়ম লঙ্ঘন করে।

নবমতঃ অপর কোন পুলিশ অফিসারের কাছ হতে যাকে গ্রেফতার করবার জন্য অনুরোধ পত্র পাওয়া গেছে। তবে এক্ষেত্রে শর্ত হলো যাকে গ্রেপ্তার করা হবে তার এবং যে অপরাধ অথবা অন্য যেকোনো কারণে গ্রেফতার করা হবে সে সম্পর্কে উক্ত পত্রে সুস্পষ্ট তথ্য থাকতে হবে এবং তা হতে প্রতীয়মান হয় যে যিনি অনুরোধ করেছেন সেই অফিসার উক্ত ব্যক্তিকে আইনসঙ্গতভাবে বিনা পরোয়ানায় গ্রেফতার করতে পারেন।

ফৌজদারি কার্যবিধির ৫৫ ধারার ১ উপধারার বিধান অনুযায়ী, থানার ভারপ্রাপ্ত অফিসার অনুরূপভাবে নিম্নবর্ণিত ব্যক্তিদেরকে গ্রেপ্তার করতে অথবা গ্রেফতার করাতে পারেন।

(ক) যে ব্যক্তি থানার এলাকার মধ্যে নিজের উপস্থিতি গোপন করার জন্য সাবধানতা অবলম্বন করছে। যার ফলে যুক্তিসঙ্গতভাবে বিশ্বাস করা যায় যে কোন আমলযোগ্য অপরাধ করার উদ্দেশ্যেই সে এরূপ সাবধানতা গ্রহণ করেছে ; অথবা

(খ) থানার এলাকার মধ্যে যে ব্যক্তির কোনো প্রকাশ্য জীবিকা নেই অথবা যে ব্যক্তি নিজের সম্পর্কে কোনো সন্তোষজনক বিবরণ দিতে পারেনা; অথবা

(গ) যে ব্যক্তি অভ্যাসগতভাবে ডাকাত, গৃহ, ভঙ্গ কারি অথবা চোর বলে অভ্যাসগতভাবে চোরাই মাল গ্রহন করার দুর্নাম আছে; অথবা

(ঘ) যে ব্যক্তির এই মর্মে দুর্নাম আছে যে, সে অভ্যাসগতভাবে বলপূর্বক অপরের সম্পত্তি গ্রহণ করে; অথবা

(ঙ) এরূপ গ্রহণের উদ্দেশ্যেই অভ্যাসগতভাবে অপরকে আঘাতের ভীতি প্রদর্শন করে।

এ প্রসঙ্গে একটি মামলার রায়ে সিদ্ধান্ত হয় যে, পুলিশ ফোজদারী কার্যবিধির ৫৬ ধারামতে সন্দেহজনক অপরাধীকে গ্রেপ্তার করতে পারে এবং উক্ত অপরাধের বিরুদ্ধে স্বতন্ত্র অপরাধ কিংবা এই কার্যবিধির অষ্টম অধ্যায়ের অধীন কার্যকরী ব্যবস্থা নিতে পারে। (27 CrLJ 628)

ফৌজদারি কার্যবিধির ১৫১ ধারার বিধান মতে, কোন পুলিশ অফিসার যদি জানতে পারেন যে, কোন আমলযোগ্য অপরাধ সংগঠনের জন্য কোন ব্যক্তি ষড়যন্ত্র বা কুমতলব করছে এবং এই অপরাধ সংগঠন অন্যভাবে প্রতিরোধ করা যাবে না, তবে সেক্ষেত্রে উক্ত পুলিশ অফিসার ম্যাজিস্ট্রেটের আদেশ ও পরোয়ানা ছাড়া ষড়যন্ত্রকারী বা কুমতলবকারী ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করতে পারেন।

এছাড়া ফৌজদারি কার্যবিধির ৪০১ ধারার ৩ উপধারা মতে যখন কোন ব্যক্তির কোন শর্তে কোনো দণ্ড স্থগিত রাখা বা মওকুফ করা হয়, তখন উক্ত ব্যক্তি ওই সকল শর্ত ভঙ্গ করলে পুলিশ অফিসার তাকে বিনা পরোয়ানায় গ্রেপ্তার করতে পারেন।পরিশেষে বিশেষভাবে উল্লেখ করা যায় যে, গ্রেফতার সম্পর্কে ফৌজদারি কার্যবিধির ৫৪ ধারা পুলিশের হাতে বিপুল ক্ষমতা অর্পণ করেছে এবং প্রায় সময়ই পুলিশ কর্তৃক এই ক্ষমতার অপপ্রয়োগ লক্ষ্য করা যায়। যদিও ৫৪ ধারায় গ্রেফতার সংক্রান্ত ব্যাপারে আমাদের দেশের উচ্চ আদালতের গুরুত্বপূর্ণ নির্দেশনা রয়েছে, তবুও ঐ নির্দেশনার তোয়াক্কা না করে বিভিন্ন সময়ে পুলিশ ৫৪ ধারার ক্ষমতার অপব্যবহার করে সাধারণ নিরীহ জনগণকে হয়রানী করে থাকে যা মোটেও গ্রহনযোগ্য নয়।

আপনি কি আমাদের ব্লগে লিখতে আগ্রহী? তাহলে এখানে নিবন্ধন করুন।
আপনার কি কিছু বলার ছিল? তাহলে লিখুন নিচে মন্তব্যের ঘরে।
পোস্টটি শেয়ার করুন

Previous
Next Post »

3 টি মন্তব্য

মন্তব্য করার জন্য এখানে ক্লিক করুন
২৫ মার্চ, ২০১৮ ১০:১৫ PM ×

কিছু আইনগত বিষয় সবারই জানা থাকা দরকার। এধরনের ব্লগ যে প্রয়োজনীয়তা মেটাতে সহায়ক হবে। আর যারা বিজ্ঞানে আগ্রহী তাদের জন্য: http://fromreadingtable.com/bangla/

উত্তর দিন
avatar
২৫ মার্চ, ২০১৮ ১০:২৫ PM ×

কিছু আইনগত বিষয় সবারই জানা থাকা দরকার। এধরনের ব্লগ সে প্রয়োজনীয়তা মেটাতে সহায়ক হবে। আর যারা বিজ্ঞানে আগ্রহী তাদের জন্য: http://fromreadingtable.com/bangla/

উত্তর দিন
avatar
৭ এপ্রিল, ২০১৮ ৫:১৬ AM ×

ধন্যবাদ আপনার মূল্যবান মন্তব্যের জন্য।

উত্তর দিন
avatar