কারাগারে বন্দীর সাথে আইনজীবীর সাক্ষাতের নিয়মাবলী

| প্রকাশিত হয়েছেঃ বৃহস্পতিবার, এপ্রিল ২৬, ২০১৮ | ভয়েস বিভাগঃ
জেল কোড অনুযায়ী বন্দী দুই ধরণের হয়। সাজা প্রাপ্ত বন্দী এবং বিচারাধীন বন্দী। উভয়কেই জেল কোড অনুযায়ী কারাগারে আটক রাখা হয়। আইনজীবীর সাথে সাক্ষাত করা বা আইনজীবীর সাথে পরামর্শ করার অধিকার হলো প্রত্যেক বন্দীর সাংবিধানিক অধিকার। কারাগারের বন্দীর বা আসামীর মামলা পরিচালনার স্বার্থে বন্দী বা আসামীর সাথে সাক্ষাত করা একজন আইনজীবীর জন্য জরুরী হতে পারে। একজন আইনজীবী বন্দী বা আসামীর সাথে কিভাবে সাক্ষাত করতে পারেন বা সাক্ষাতকালে কি সুবিধাদি পাবেন তার বিস্তারিত বিধান রাখা হয়েছে জেল কোডে।

জেল কোডের ৬৮২ নং বিধিতে বলা হয়েছে যে, বিচারাধীন ফৌজদারি বন্দী এবং সিভিল বন্দীদেরকে যথোপযুক্ত সময় এবং বাধা নিষেধের আওতায় আত্মীয় স্বজন, বন্ধু বান্ধব এবং আইনজীবীর সাথে সাক্ষাত বা মৌখিক বা লিখিত যোগাযোগের পর্যাপ্ত সুযোগ দিতে হবে।

জেল কোডের ৬৮৩ বিধি অনুযায়ী বিচারাধীন বন্দীর সংগে তার আইনজীবীর সাক্ষাতের আলাপ আলোচনা দায়িত্বপ্রাপ্ত কারা কর্মকর্তা কর্মচারীর শ্রবণ সীমানার বাহিরে কিন্তু দৃষ্টি সীমানার মধ্যে অনুষ্ঠিত হবে। বন্দীর নিকট আত্মীয় স্বজনের সাক্ষাতের সময়েও অনুরূপ সুবিধা দেওয়া যেতে পারে।

৬৮৪ নম্বর বিধিতে বলা হয়েছে যে, কোন বিচারাধীন বন্দী এর আইনজীবী হিসেবে কোন ব্যক্তি তাঁর সাথে সাক্ষাৎ করতে ইচ্ছুক হলে তিনি নাম, ঠিকানা এবং পেশার বিবরণ দিয়ে লিখিত আবেদন করবেন। তিনি যে ওই বন্দীর প্রকৃত আইনজীবী সে ব্যাপারে জেল সুপারকে নিশ্চিত হতে হবে। সাক্ষাৎ অনুমোদন করা হলে ওই আইনজীবীর নাম বন্দীর হিস্ট্রি টিকেটে লিখতে হবে এবং অনুষ্ঠিত সকল সাক্ষাত হিস্ট্রি টিকেটে লিখতে হবে।

৬৮৫ নম্বর বিধিতে বলা হয়েছে যে, জেল সুপার প্রয়োজন মনে করলে ৬৮৪ বিধিতে বর্ণিত সাক্ষাতের কোন আবেদন জেলা ম্যাজিস্ট্রেট বা চীফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট বা গোয়েন্দা বিভাগের পুলিশ সুপারের নিকট আদেশের জন্য প্রেরণ করতে পারবেন।


৬৮৬ নম্বর বিধি মোতাবেক কোন বিচারাধীন বন্দীর সঙ্গে তার আইনজীবীর সাক্ষাতের অনুমতি দেয়া হলে, সাক্ষাৎ যতশীঘ্র সম্ভব অনুষ্ঠিত হবে এবং একজন কারা কর্মকর্তা-কর্মচারী তত্ত্বাবধান করার জন্য উপস্থিত থাকবেন।

৬৮৭ নম্বর বিধি অনুসারে বিচারাধীন বন্দী কর্তৃক তার আইনজীবীর উদ্দেশ্যে লিখিত মামলা পরিচালনার নির্দেশ সম্বলিত একান্ত গোপনীয় পত্র জেল সুপার কর্তৃক পূর্ব পরীক্ষা ছাড়াই আইনজীবীর নিকট ব্যক্তিগতভাবে প্রেরণ করা যেতে পারে।

সাজাপ্রাপ্ত বন্দীর ব্যাপারে জেলকোডের ৬৭৪ নম্বর বিধিতে বলা হয়েছে যে, কোনো আইনজীবী কোন ফৌজদারী সাজাপ্রাপ্ত বন্দির সাথে সাক্ষাৎ করতে চাইলে ২৪ ঘন্টা পূর্বে তাকে আবেদন করতে হবে এবং সাক্ষাতের কারণ সুনির্দিষ্টভাবে উল্লেখ করতে হবে। জেল সুপারের আদেশ অবশ্যই গ্রহণ করতে হবে। যদি সাক্ষাতের অনুমতি প্রদান করা হয় তবে তা বিচারাধীন বন্দীদের জন্য প্রযোজ্য নিয়মে হবে।

কোন আইনজীবী যদি বিচারাধীন বন্দী বা সাজাপ্রাপ্ত কোন বন্দীর সাথে সাক্ষাত করতে চায়, তাহলে সর্বপ্রথম আইনজীবীকে জেল সুপারের বরাবর সাক্ষাতের জন্য আবেদন করতে হবে। আবেদন মঞ্জুর করলে আইনজীবী সংশ্লিষ্ট বন্দীর সাথে সাক্ষাত করতে পারবেন। বন্দীর সাথে আইনজীবী কতটুকু সময় সাক্ষাতের জন্য পাবেন তা আদেশে উল্লেখ করা থাকে এবং কয়টা থেকে কয়টা পর্যন্ত সাক্ষাতের সময়কাল হবে সেটাও আদেশে উল্লেখ করা থাকে। আবেদন মঞ্জুর হওয়ার পরে আদেশে উল্লেখিত তারিখ এবং সময়ে আইনজীবী সাহেব সংশ্লিষ্ট বন্দীর সাথে সাক্ষাৎ করতে পারবেন।

আপনি কি আমাদের ব্লগে লিখতে আগ্রহী? তাহলে এখানে নিবন্ধন করুন। আপনার কি কিছু বলার ছিল? তাহলে লিখুন নিচে মন্তব্যের ঘরে।

পোস্টটি শেয়ার করুন

Previous
Next Post »